প্রায় সব প্রজাতির উইপোকাই ক্ষতিকর। বাংলাদেশে এদের লক্ষণীয় ক্ষতির মধ্যে পড়ে বাঁশ এবং কাঠের খুঁটি, আসবাবপত্র, বাড়িঘরের কাঠ বা বাঁশের তৈরি অংশ, পাটশোলার বেড়া, বইপুস্তক, কাপড়চোপড়, নানা ফসল, গাছপালা এবং আরও অনেক সামগ্রী খেয়ে নষ্ট করা।

সাধারণত গাছে মোচা আসার পর উইপোকার আক্রমন হয়।উইপোকা গাছের গোড়ার দিকের মাটি উপরে তুলে। ফলে গাছ শুকিয়ে মরে যায়।
দেয়ালের ফাঁকে বা গাছের ফোঁকড়ে এদের তৈরি বাসা কখনও কখনও প্রসারিত হয় নানা দিকে। এদের উপকারী ভূমিকার মধ্যে রয়েছে মরা গাছপালা এবং কাঠের গুড়ি খেয়ে তা মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়া; এতে মাটির উর্বরতা বাড়ে।

কিন্তু এর ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারন করা যাবে না।। প্রতি বছর সারা বিশ্বে উইপোকারা প্রায় চল্লিশ বিলিয়ন ডলারের ক্ষতি করে থাকে। সারা বিশ্বে উইপোকা দিয়ে যত ক্ষতি হয় তার মাঝে সবচাইতে বেশি কুকর্ম করে থাকে Formosan subterranean termite (Coptotermes formosanus) নামের এই জাতটিই। এরা আপনার কোটির টাকার সম্পদ কয়েক দিনের মধ্যে খেয়ে মাটি করে দিতে সক্ষম।। উইপোকা আপনার ঘরের মেঝের ক্ষতি সাধন করে আপনার বিল্ডিং এর মেয়াদ কমিয়ে দিতে পারে।। এদের বংশবিস্তার করার ক্ষমতা অবাক করার মতো।। দলবদ্ধভাবে এরা এমন ক্ষতি করতে সক্ষম যা আপনি ভাবতে পারবেন না।।

উইপোকাদের সাধারণত ছয়টি গোত্রে ভাগ করা যায়। ভারতীয় উপমহাদেশে প্রায় ১০০ প্রজাতির উইপোকর কথা ইল্লেখ থাকলেও বাংলাদেশ থেকে মাত্র ৪০টি প্রজাতির বর্ণনা পাওয়া যায়।। নিঃসন্দেহে এ সংখ্যা দেশের মোট প্রজাতির একটি অংশ মাত্র। ফসল বা অর্থনৈতিক গুরুত্বপূর্ণ গাছপালার ক্ষতি করে এমন প্রজাতিগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য পাটের ক্ষতিকর উইপোকা Microtermes obesi এবং Odontotermes obosus; আখের ক্ষতিকর প্রজাতি Odontotermes parvidens, O. lokanardi এবং Microtermes obesi;  চীনাবাদাম আক্রমণকারী Termes laprobanses এবং  চা গাছ আক্রমণকারী Microtermes-এর এক প্রজাতি। এ ছাড়া বেশ কয়েকটি প্রজাতি শালবনের ক্ষতি করে।

উইপোকা থেকে বাচার উপায়!

উইপোকা দমনের জন্য অনেক উপায়ের কথা আমরা বইপত্রে বা ইনটারনেটে পেয়ে থাকি। কিন্তু সেগুলোর কার্যকারিতা নিয়ে অনেকের অনেক প্রশ্ন রয়েছে। তাই আমরা সে সমস্ত বিষয়ের দিকে না গিয়ে সরাসরি কাজের কথা বলি। বাজারে হার্ডওয়ারের দোকান থেকে wood preservative নামের এক ধরনের কেমিক্যালস পাওয়া যায় যা অত্যন্ত কার্যকারি। উইপোকা আক্রান্ত স্থানে ঐ কেমিক্যালস লাগিয়ে দিলে উইপোকা থেকে পরিত্রাণ সম্ভব। তবে এটা লাগানোর সময় অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যেন তা মুখের ভিতর না যায় বা ত্বকে না লাগে।।

উইপোকা নিধন করতে আমাদের সহায়তা নিতে পারেন।। আমাদের হট-লাইনে ফোন দিয়ে যেকোন সময় জেনে নিতে পারেন আমাদের সেবাসমূহ সম্পর্কে।।আমাদের টিম বাংলাদেশের যেকোন প্রান্তে সেবা প্রদান করার জন্যে সর্বদা প্রস্তুত।।